Monday , December 11 2017
Breaking News
Home / জাতীয় / সকালে যাত্রাবাড়ী থেকে মিয়ানমার অভিমুখে ইসলামী আন্দোলনের লংমার্চ শুরু
১৮ ডিসেম্বর যে কোন মূল্যে লংমার্চ সফল করে মিয়ানমারকে কঠোর জবাব দিতে হবে -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ
১৮ ডিসেম্বর যে কোন মূল্যে লংমার্চ সফল করে মিয়ানমারকে কঠোর জবাব দিতে হবে -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

সকালে যাত্রাবাড়ী থেকে মিয়ানমার অভিমুখে ইসলামী আন্দোলনের লংমার্চ শুরু

15401029_1250648998314249_7753763082980382730_nমিয়ানমারে মুসলিম গণহত্যা বন্ধে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মিয়ানমার অভিমুখে রবিবারের লংমার্চ শুরুর স্থান জাতীয় প্রেসক্লাবের পরিবর্তে যাত্রাবাড়ী নির্ধারণ করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করেছেন ইসলামী আন্দোলন নেতৃবৃন্দ।

শনিবার (১৭ ডিসেম্বর) দুুপুরে দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিবাদ করে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও লংমার্চ বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, এতদসত্ত্বেও লংমার্চ যথাযথভাবেই হবে এবং পুর্ণ প্রস্তুতিও রয়েছে। সকলস্তরের মানুষ এ লংমার্চে অংশ নেবে।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, মিয়ানমারে সামরিক জান্তা-পুলিশ ও সন্ত্রাসী বৌদ্ধদের দ্বারা বর্বরোচিত রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যা, ধর্ষণ, বাড়ী-ঘরে অগ্নিসংযোগ ও নির্যাতন বন্ধ, সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের সকল প্রকার নাগরিক ও মানবিক অধিকার ফিরিয়ে দেয়া, জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশে আশ্রয়গ্রহণকারী সকল রোহিঙ্গাকে তাদের স্বদেশ মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেয়া, গণহত্যা ও ধর্ষণের বিচার এবং মিয়ানমারের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্যে মানবিক বিপর্যয় রোধ এবং শান্তি প্রতিষ্ঠায় সামরিক অভিযান অথবা জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েনের দাবিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই ১৮ ডিসেম্বর এ লংমার্চের ঘোষণা দেন। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় মিয়ানমারে মুসলিম গণহত্যা বন্ধে বাংলাদেশ সরকারকে আন্তর্জাতিকভাবে চাপ প্রয়োগ করতে হবে এবং অং সান সু চি’র বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা দায়ের করে বিচারের উদ্যোগনিতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ই্উনুছ আহমাদ, রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী আশরাফুল আলম,কেএম আতিকুর রহমান, প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, নগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা নেছার উদ্দিন, মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, আলহাজ্ব আবদুর রহমান, মাওলানা আতাউর রহমান আরেফী, শ্রমিকনেতা খলিলুর রহমান, ছাত্রনেতা আজিজুল হক, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাকী, শরীফুল ইসলাম প্রমুখ।
লংমার্চ সফলে কয়েকটি উপ-কমিটি গঠন করা হয়। এরমধ্যে রয়েছে- লংমার্চ বাস্তবায়ন কমিটি ও উপ কমিটি প্রচার মিডিয়া সেল গঠন করা হয়।

লংমার্চ মিয়ানমারের পথে যে সকল স্থানে জমায়েত ও পথসভা অনুষ্ঠিত হবে তারমধ্যে রয়েছে : যাত্রাবাড়ী কাজলা ফ্লাইওভারের গোড়ায় জমায়েত সকাল ৯টায় এবং কাফেলা যাত্রা শুরু ১০.৩০মি.। বাস ও মাইক্রো/ হাইয়েজ গাড়ীতে যাত্রা। জনসভা/পথসভা: ক. কাঁচপুর সকাল ১১ টা, খ. গৌরীপুর বেলা ১১.৩০মি. গ. দাউদকান্দি ১২.০০ মি. ঘ. কুমিল্ল বিশ^রোড দুপুর ২ টা, ঙ. ফেনী মহিপাল বিকাল ৪ টা, চ. বারইয়ারহাট ৫ টা, ছ. চট্রগ্রাম জমিয়াতুল ফালাহ ময়দানে গণজমায়েত রাত ৭ টা ও রাত্রিযাপন চট্টগ্রামে, জ. চট্রগ্রাম থেকে ১৯ ডিসেম্বর সকাল ৮ ঘটিকায় চট্টগ্রাম থেকে মিয়ানমার উদ্যেশ্যে যাত্রা শুরু, ঝ. পটিয়া পথসভা : সকাল ১১ টা, ঞ. কেরানীরহাট সাতকানিয়া পথসভা : ১২ টা, ত. চকরিয়া কক্সবাজার পথসভা ও জোহরের নামাজ, থ. কক্সবাজার লিংক রোড পথসভা বাদ আসর, দ. বাদ আসর পথসভার পর মায়ানমারের উদ্যেশে যাত্রা…

লংমার্চ সফলে বিভিন্ন সংগঠনের সমর্থণ
পীর সাহেব চরমোনাই ঘোষিত মিয়ানমার অভিমুখে লংমার্চের প্রতি আন্তরিক সমর্থণ ও দোয়া জ্ঞাপন করে বিভিন্ন সং

১৮ ডিসেম্বর যে কোন মূল্যে লংমার্চ সফল করে মিয়ানমারকে কঠোর জবাব দিতে হবে -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ
১৮ ডিসেম্বর যে কোন মূল্যে লংমার্চ সফল করে মিয়ানমারকে কঠোর জবাব দিতে হবে -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

গঠন নেতৃবৃন্দ বিবৃতি দিয়েছেন। বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের ডা. এস এম সাখাওয়াত, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের আতিকুল ইসলাম, কসরে হাদী খানকার পরিচালক শাহসুফী আবদুল হান্নান আল হাদী, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ খলিলুর রহমান, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নূরুল ইসলাম আল আমীন, জাতীয় তাফসীর পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, হকার্স শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি মুহা. ইমাম হোসেন ভুইয়া, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সদস্য সচিব বীল মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, ইসলামী আইনজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি এ্যাডভোকেট শেখ আতিয়ার রহমান ও সম্পাদক এ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান শেখ, ইসলামী যুব আন্দোলনের আহ্বায়ক কে এম আতিকুর রহমান ও সদস্য সচিব মুহাম্মদ নেছার উদ্দিন, মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম কাউন্সিল চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম কবির।

Check Also

DSC03465

মূর্তি স্থাপন ধর্মীয় সম্প্রীতি বিনষ্ট করার ষড়যন্ত্র -মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম

মূর্তি স্থাপনের মাধ্যমে আদিকাল থেকে চলে আসা বাংলার ধর্মীয় সম্প্রীতিকে বিনষ্ট করা হচ্ছে। এদেশের মানুষ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *