Monday , December 11 2017
Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / চরমোনাই পীর সাহেব সম্পর্কে যা বল্লেন দেওবন্দের মুহাদ্দীস মাওলানা মুফতী আমীন পালনপূরী
চরমোনাই পীর সাহেব সম্পর্কে যা বল্লেন দেওবন্দের মুহাদ্দীস মাওলানা মুফতী আমীন পালনপূরী
চরমোনাই পীর সাহেব সম্পর্কে যা বল্লেন দেওবন্দের মুহাদ্দীস মাওলানা মুফতী আমীন পালনপূরী

চরমোনাই পীর সাহেব সম্পর্কে যা বল্লেন দেওবন্দের মুহাদ্দীস মাওলানা মুফতী আমীন পালনপূরী

15977941_1051474298315341_3921658473844619506_n
মুনশি মুহাম্মাদ আবু দারদা, দেওবন্দ, ভারত৷

পীর সাহেব হুজুরের সম্পর্কে দারুল উলুম দেওবন্দের মুহাদ্দীস মাওলানা মুফতী আমীন পালনপূরী দা.বা.এর মন্তব্য

হযরত আপনার বাংলাদেশ সফর কেমন হল ??

আলহামদুলিল্লাহ ভাল হয়েছে৷ আমার বাংলাদেশে সফর করতে অনেক ভাল লাগে৷ আমি বৃহস্পতিবার দেওবন্দ থেকে বাংলাদেশ সফরের উদ্দেশ্য রওনা হই এবং রাত্রে বাংলাদেশ এয়ার্পোটে নামার পরে সিলেটের উদ্দেশ্য রওনা দেই৷ ঐখানে হযরত পীর সাহেব হুজুরের সাথে আমার একটি মাহফিল ছিলো৷ রাত্রে সিলেটে থাকি৷ সকালে পীর সাহেব হুজুরের বয়ানের পর দেখতে পেলাম পুরো মাঠ থেকে আল্লাহর জিকিরের ধ্বনি আসে৷ তখন আমার অনেক আনন্দ লাগে, এবং আমার মনে একটি নজম আসে

میں تجھے دیکھا ذکر کی حالت میں
میں تجھے دیکھا تسبیہ کی حالت میں
জিকিরের পরই মুজাহীদ ভাইয়েরা তালিম তরবিয়াতে ব্যাস্ত এগুলি আমার কাছে অনেক সুন্দর লাগলো৷

এর আগে ও আমি হযরত পীর সাহেব হুজুরের সাথে মাহফিল করেছি, যেদিন আমার সিলেটে মাহফিল ছিল, ঐদিন দেওবন্দ থাকা অবস্হায় হযরত পীর সাহেবের ছোট ভাই মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম সাহেব আমার কাছে ফোন দেয়, এবং আমার যাওয়ার খোজ খবর নেয়৷ আমি হুজুরকে বললাম, ইনশাআল্লাহ আমি আজকে রওনা দিবো৷

আমি এদের দুই ভাইয়ের মধ্যে এমন নম্রতা দেখেছি যা বলার মতো নয়৷ তারা দুই ভাই যতক্ষণ আমার সাথে ছিল তাশাহুদের হালতে বসা ছিল৷ এবং তারা আমাকে খুব মুহাব্বত করে৷ তাদের প্রতি বছর২৪,২৫,২৬,ফেব্রুয়ারী চরমোনাই যে বড় ইজতেমা হয় সেখানে যাওয়ার জন্য বিশেষভাবে দাওয়াত দিয়েছেন৷ আমি ও ওয়াদা করি, ইনশাআল্লাহ আসবো৷

আমার মনে হল পীর সাহেব চরমোনাই র হুজুরের বয়স 50/55 বছর হবে৷ এদের সমস্ত দ্বীনি নিয়ম কানুন অনেক সুন্দর৷ তাদের মাহফিল পরিচলনার জন্য সরকার থেকে পুলিশ বাহিনির প্রয়োজন হয়না৷ তাদের যেই মুজাহিদ কমিটি আছে তারা সুন্দর ভাবে পরিচলনা করেন৷ এদের মাহফিলে এত মুসল্লী হয়, যা আমি ইতিপূর্বে আর কোন মাহফিলে দেখি নাই৷

এই সফরে প্রাই 50 টি প্রোগাম করেছি৷ তাদের রাজনীতির ময়দানে ভালো প্রভাব৷ তারা পীর মুরিদি ছাড়াও অনেক দিক অর্থাৎ রাজনিতির ময়দানে কোরআন হাদীসের খেদমতে, তালিম তাজকিয়া এমন কি অামি শুনেছি কোরআনের খেদমতের ব্যাপারে তাদের পিতা মরহুম সৈয়দ ফজলুল করীম ( রহ.) বলেছেন 68 হাজার গ্রামে 68 টি হাজার কোরঅানি মাদ্রাসা চাই৷ এবং তাদের থানায়, জেলাই বিভাগে সব যাগায় কোরআনি মাদ্রাসা, দাওরা হাদীস ইফতা পর্যন্ত মাদ্রাসা আছে৷ তাদের রেজিস্টাের মাদ্রাসার সংখ্যা ৮ হাজারেরও বেশি আছে৷

রাজনীতির ময়দানে তাদের অবদান অনেক৷ তারা আলাদা একটি শক্তি এবং তাদের দলের পরিধি অনেক বড়৷ তাদের কে প্রাই সকল আলেমরা ভাল বাসে কিন্তু রাজনীতির কারনে তাদের মধ্যে ইখতেলাফ, তাদের আব্বাজান মরহুম পীর সাহেব, নারী নেতৃত্ব এবং মওদুদির ব্যাপারে খুব কঠোর ছিলেন৷ তিনি বলতেন, মওদুদী জামাত কোন ইসলামী দল না, নারী নেতৃত্র সম্পর্কে বলেন, হাদীস শরীফে রাসূল ( সাঃ) বলেন, যে জাতীর আমির কোন নারী হবে তারা কোনদিন শান্তির মুখ দেখবেনা৷ এ কারণে বর্তমান পীর সাহেব চরমোনাই তার দলসহ এ কথার উপরে অটল ৷

মাহফিল শেষে পীর সাহেব হুজুর বললেন, এখানে যদি কোন সুন্নাতের খেলাফ কিছু দেখেন তাহলে আমাদের কে বলেন আমরা সংসধন হয়ে যাবো৷ এবং তাদের দেওবন্দের আলেম ওলামার সাথে এতো সম্পর্ক৷ কিভাবে তাদের কে আমি বাতেল বলতে পারি এমনকি তার ছোট দুই ভাই, মুফতী সৈয়্যেদ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম
ও মুফতী সৈয়্যেদ মুহাম্মাদ নুরুল করীম দারুল উলুম দেওবন্দের ফারেগ৷ তারা সবসময় দেওবন্দি আলেমের সাথে মিলেমিশে থাকতে চায৷ কিন্তু কিছু আলেম সমাজ তাদের কে মেনে নিতে পারছেনা৷ কারণ রাজনীতির ময়দানে কিন্তু এটা স্বাভাবিক৷

এবং আমার যে তরজুমান ছিল, হযরত মাওলানা মুফতী ওমর ফারুক সন্ধিপী অনেক সুন্দর উর্দু জানে৷ বাংলাদেশে ওয়াজ করতে আমার অনেক ভালো লাগে পাঁচ মিনিট বয়ান করি এরপর তরজামা করা হয় মাঝে আমার বিশ্রাম ও হয়ে যায়৷

 

Check Also

6051446508_1729a04d2b_z

সমস্যা ড. ইউনুছ : প্রধানমন্ত্রী

একুশবিডি24ডটকম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, শুধু এক ব্যক্তির স্বার্থে আঘাত লাগায় পদ্মা সেতু প্রকল্প থেকে বিশ্বব্যাংক …

One comment

  1. মুহাম্মদ জাকির হোসাইন

    Ekushbd24. Com এর সম্পাদক মহোদয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি – ফেসবুকে আপলোডকৃত যে কোন লেখাই যে কোন অনলাইনে ছাপতে কোনো সমস্যা নেই তবে সম্পাদনা ছাড়াই কোনো লেখা ছাপানো দোষনীয় মনে হয়। উল্লেখিত লেখাটি কোনো ধরনের সম্পাদনা ছাড়াই লেখক তার ফেসবুক আইডিতে গত রাতে আপলোড করেন। পরবর্তীতে অনেক গুলো ভূল দৃষ্টিগোচর হলে লেখাটিতে সম্পাদনা আনেন। কিন্তু ekushbd24.com এ কোনো ধরনের সম্পাদনা ছাড়াই লেখাটি প্রকাশ করে। এমনকি মুফতি আমীন পালনপুরী সাহেবের নামে রচিত শ্লোকটিতেও বানানগত ভূল রয়েছে। আশাকরি লেখাটিতে সম্পাদনা আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *